সোমবার , ১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম :
ববিতে যাত্রা শুরু করলো ‘আলোর দিশা বাংলাদেশ(আদিবা)’ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত  সাংবাদিক মোজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন ঠাকুরগাঁওয়ে বিআরটিএ’র বিশেষ সেবা সপ্তাহ শুরু ইউপি নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি সান্তাহারে মারপিটের ঘটনায় আহত-২জন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ হওয়াতে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে আলোচনা সভা অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ভাইরাল হওয়ার ক্ষোভে স্কুল ছাত্রী লিপি আক্তারের আত্মহত্যা আদমদীঘিতে সাজনে ডাটার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা মাদারীপুর পৌরসভার ও শিবচর পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত

শুভ জন্মদিন এম.এ.জি ওসমানী

মোহাম্মদ আতাউল গনী ওসমানী
মোহাম্মদ আতাউল গনী ওসমানী




মোহাম্মদ আতাউল গনী ওসমানী, মুক্তিবাহিনীর সর্বাধিনায়ক, বাংলাদেশের সূর্যসন্তান, সিলেটের গৌরব আতাউল গনী ওসমানী। ১৯১৮ সালের এই দিনে ১লা সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৩৯-৪০ সালে তিনি ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান আর্মিতে অফিসার হিসাবে যোগ দেন, ১৯৪০ সালে তিনি সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট হিসাবে ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান আর্মিতে কমিশন লাভ করেন। তিনি ৪র্থ আরবান ইনফ্যান্ট্রিতে কমিশন লাভ করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন সময়ে তিনি তার সমর নৈপূন্যে দ্রুত পদন্নোতি লাভ করেন। ১৯৪১ সালে টেম্পোরারী ক্যাপ্টেন ও ১৯৪২ সালে মেজর পদবী লাভ করেন। ১৯৪৭ সালে তিনি লেফটেন্যান্ট কর্ণেল পদবী লাভ করেন।

১৯৪৭ সালে ভারত পাকিস্তান নামে দুটি স্বাধীন দেশ জন্ম লাভ করলে ওসমানী পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগ দেন এবং তার কর্মজীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন পদে কর্মরত ছিলেন।পাকিস্তান মিলিটারী থেকে তিনি রিটায়ার করেছিলেন ১৯৬৭ সালে।

জেনারেল ওসমানী ছিলেন চিরকুমার। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে দেশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য তিনি অবসর থেকে এসে মুক্তিবাহিনীর দায়িত্বভার গ্রহন করেন। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল গঠিত মুজিবনগর সরকারে ওসমানীকে করা হয় মুক্তিবাহিনীর প্রধান সেনাপতি। ওসমানীর নির্দেশনা অনুযায়ী সমগ্র বাংলাদেশকে ১১টি সেক্টরে ভাগ করা হয়।

রণনীতির কৌশল হিসেবে প্রথমেই তিনি সমগ্র বাংলাদেশকে ভৌগোলিক অবস্থা বিবেচনা করে ১১টি সেক্টরে ভাগ করে নেন এবং বিচক্ষণতার সঙ্গে সেক্টরগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে থাকেন। তার সমরজ্ঞান ও নৈপূন্য, মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগে নয় মাসেই স্বাধীনতা লাভ করে বাংলাদেশ। এরপর তিনি রাজনীতিতেও যুক্ত হয়েছিলেন। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে তিনি সংসদ সদস্য এবং কেবিনেট মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনীর ব্যাপারে দ্বিমত পোষণ করে এম.এ.জি ওসমানী ১৯৭৫ সালের মে মাসে মন্ত্রীসভা ও সংসদ থেকে পদত্যাগ করেন।

বাংলার এই বীর সন্তান ১৯৮৪ সালের ১৬ই জানুয়ারী শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত




ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
৫,৪৬,২১৬
২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
৪,৯৬,৯২৪
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
৮,৪০৮
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
২৫,৩৮,৮৩৮
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
১১,৪৪,৫৩,১৬৬
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত