বুধবার , ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম :
দৈনিক গণমুক্তির ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উলিপুরে দুই দিনের মেলা একদিনে শেষ মোল্লাপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ক্যাম্পেইন চাঁপাইনবাবগঞ্জে উপনির্বাচনে নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ ​গাজীপুরে কেক খেয়ে ২ বোনের মৃত্যু, অসুস্থ আরো ১ গৃহবধূর মৃত্যু : বোন বলছে হত্যাকান্ড, স্বামীর পরিবার বলছে আত্মহত্যা গণঅভ্যূত্থানে শহীদ হারুনকে গৌরীপুরে স্মরণ ভোলায় অবৈধ অটোরিক্সা চাপায় প্রাণ গেলো পথশিশুর অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার : চারদিনেও অজানা পরিচয়, উদঘাটন হয়নি মৃত্যুর রসহ্য হারুন দিবসে প্রতীকী ভাষ্কর্য্য নির্মাণের দাবী ছাত্র ইউনিয়নের
মোট আক্রান্ত

২০,৩৫,৯৯২

সুস্থ

১৯,৮৩,১৩২

মৃত্যু

২৯,৪২৬

১২ নভেম্বর, ২০২২ | ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিবের আইপিআরএস পদ্ধতিতে মাছ চাষ প্রকল্প পরিদর্শন

<script>” title=”<script>


<script>

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেছেন, কৃষি ঋণের একটি অংশ হল মৎস্য ঋণ। দেশের বানিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংকগুলো তাদের ব্যবসার স্বার্থে মৎস্য চাষীদের সহজ শর্তে ব্যাংক ঋণ প্রদান না করে নানারকম অনিয়ম-দূর্নীতি করেন। ভবিষ্যতে আর এমন অনিয়ম থাকবে না। এ লক্ষ্যে সরকার ব্যাংকগুলোর সাথে আলোচনা করেছে। ব্যাংকগুলো এখন এ বিষয়ে সর্তক অবস্থানে রয়েছে। প্রযুক্তি ভিত্তিক মৎস্য চাষে ব্যাংক ঋণ প্রদাণ আরো সহজ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে মৎস্য চাষে আর কোন অন্তরায় থাকবে না বলেও জানান তিনি।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বাংলাদেশের উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের আতাহার এলাকায় অবস্থিত দেশের প্রথম ইন পন্ড রেসওয়ে সিস্টেম-আইপিআরএস পদ্ধতিতে সম্পূর্ণ ব্যক্তি উদ্দ্যোগে করা মাছ চাষের নবাব হাইটেক মৎস্য খামার পরিদর্শন শেষে এসব কথা বলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী।

এ সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সচিব আরও বলেন, আইপিআরএস পদ্ধতিতে মাছ চাষ অত্যন্ত নিরাপদ। ফলে মাছে দেশীয় বাজারে যেমন প্রসার ঘটবে, তেমনি আন্তর্জাতিক বাজারেও মাছ রপ্তানিতে এই পদ্ধতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আর তাই আইপিআরএস পদ্ধতিতে মাছ চাষের এই প্রযুক্তি ছড়িয়ে দিতে পারলে মৎস্য চাষীরা লাভবান হবেন। তবে ব্যয়বহুল হওয়ার কারনে সবার পক্ষে এই পদ্ধতিতে মাছ চাষ করা সম্ভব না হলেও মাছ চাষীদের এই পদ্ধতিতে মাছ চাষে আমরা আহবান জানাই।

সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেন, আইপিআরএস পদ্ধতিতে রেসওয়ে প্রযুক্তির মাধ্যমে চ্যানেলগুলোয় কৃত্রিম স্রোত তৈরি করা হয়। ফলে প্রবাহমান পানিতে ২৪ ঘণ্টা অধিক অক্সিজেন তৈরি হয়। যাতে স্বাভাবিকের চেয়ে ৫-৬ গুণ বেশি মাছ বসবাস করতে পারে। আর জলাশয়ের মাছেরা প্রতিটি চ্যানেলে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে উন্নত ও পুষ্টিকর খাবার পায় ও পাশাপাশি অবাধে বিচরণ করতে পারে। এতে একেকটি চ্যানেলে রাখা যায় একেক ধরনের মাছ। প্রযুক্তির সাহায্যে খাবার সরবরাহ ও সুষ্ঠুভাবে পরিচর্যা হওয়ায় মাছ দ্রুত বেড়ে ওঠে এবং কোনো রোগবালাইও তেমন হয় না।

এ বিষয়ে নবাব হাইটেক মৎস্য খামারের মালিক ও উদ্যোক্তা আকবর হোসেন বলেন, ৬ শত বিঘা জলাশয়ে যে পরিমাণ মাছ উৎপাদন করা সম্ভব, আইপিআরএস প্রযুক্তিতে ৬০ বিঘার খামারে সেই পরিমাণ মাছ উৎপাদিত হবে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ফসলি জমি কেটে পুকুর বানিয়ে মাছ চাষের একটা প্রবণতা চলছে। এতে কৃষিপণ্য বা ফসল উৎপাদনের জমি কমে যাচ্ছে। কিন্তু দেশে যদি আইপিআরএস প্রযুক্তিতে খামার গড়ে তোলা হয় তাহলে কম জায়গাতেই বেশি মাছ পাওয়া যাবে। এতে ফসলি জমি নষ্ট করে হাজার হাজার পুকুর তৈরির দরকার পড়বে না।

পরে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় মৎস্য অধিদপ্তরের ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি প্রোগ্রাম প্রজেক্টের আওতায় মৎস্য চাষীদের মাঝে পিকআপ ভ্যান হস্তান্তর করেন। শেষে শিবগঞ্জের পাগলা নদীতে মৎস্য অভয়ারণ্য পরিদর্শন করেন সচিব।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার মাহবুবুল হক, রাজশাহী বিভাগীয় মৎস্য অধিদপ্তর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আব্দুর রউফ, রাজশাহী বিভাগীয় প্রাণী সম্পদের পরিচালক ড. নজরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খাঁন, মৎস্য অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (অর্থ ও পরিকল্পনা) মো. সাহেদ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম, মৎস্য অধিদপ্তরের ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি প্রোগ্রাম প্রজেক্টের পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. রুহুল আমীনসহ নবাব হাইটেক মৎস্য খামারের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মাছ চাষে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় ২০১৭ সালে দেশের শ্রেষ্ঠ মৎস্যচাষীর পুরস্কার লাভ করেন নবাব হাইটেক মৎস্য খামারের মালিক আকবর হোসেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

GloboTroop Icon
পাঠকের মতামত

হারানো বিজ্ঞপ্তি

মেঘনা উপজেলার মানিকারচর ইউনিয়নের বড় নোয়াগাও গ্রামের মোঃ সোহাগ মিয়া (দাইয়ান) গত ০৬ জানুয়ারি ২০২৩ বৃহস্পতিবার ভোর ০৬টা বাজে বাসা থেকে বের হয়ে এখনো ফিরেনি। দুশ্চিন্তাগ্রস্থ পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করা হচ্ছে। যদি কোন স্বহৃদয়বান ব্যক্তি তার সন্ধান পান তাহলে অনুগ্রহ পূর্বক নিখোঁজ দাইয়ানের ছোট ভাই মোহাম্মদ ফারুখ-এর সাথে যোগাযোগ করার বিনীত অনুরোধ রইলো।
যোগাযোগের নাম্বার: 
01983505518
01980078055

উল্লেখ্য: মানুষিক অসুস্থতার কারণে স্মৃতিশক্তি অনেকটাই কম।

ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি




হারানো বিজ্ঞপ্তি

মেঘনা উপজেলার মানিকারচর ইউনিয়নের বড় নোয়াগাও গ্রামের মোঃ সোহাগ মিয়া (দাইয়ান) গত ০৬ জানুয়ারি ২০২৩ বৃহস্পতিবার ভোর ০৬টা বাজে বাসা থেকে বের হয়ে এখনো ফিরেনি। দুশ্চিন্তাগ্রস্থ পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করা হচ্ছে। যদি কোন স্বহৃদয়বান ব্যক্তি তার সন্ধান পান তাহলে অনুগ্রহ পূর্বক নিখোঁজ দাইয়ানের ছোট ভাই মোহাম্মদ ফারুখ-এর সাথে যোগাযোগ করার বিনীত অনুরোধ রইলো।
যোগাযোগের নাম্বার: 
01983505518
01980078055

উল্লেখ্য: মানুষিক অসুস্থতার কারণে স্মৃতিশক্তি অনেকটাই কম।

এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
২০,৩৫,৯৯২
১২ নভেম্বর, ২০২২
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
১৯,৮৩,১৩২
নভেম্বর ১২, ২০২২
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
২৯,৪২৬
নভেম্বর ১২, ২০২২
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
৬৫,৮৪,১০৪
নভেম্বর ১২, ২০২২
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
৬৩,০৮,৩২,১৩১
নভেম্বর ১২, ২০২২
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত