মঙ্গলবার , ২রা জুন, ২০২০ ইং
মোট আক্রান্ত

৩৬৭৫১

সুস্থ

৭৫৭৯

মৃত্যু

৫২২

ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

ঠাকুরগাঁওয়ে অ্যাডভোকেট বাবুর মৃত্যুতে ‘ফুল কোর্ট রিভারানস’

ঠাকুরগাঁওয়ে অ্যাডভোকেট বাবুর মৃত্যুতে ‘ফুল কোর্ট রিভারানস’

Ad_970x120

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের স্বনামধন্য আইনজীবী মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর মৃত্যুতে ফুল কোর্ট রেভারানস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার দুপুর ১টার দিকে জেলা ও জজ আদালতের এজলাসে কোর্ট রেভারান্স্ অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে আইনজীবী মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর স্মৃতির প্রতির শ্রদ্ধা জানিয়ে উপস্থিত সকল আইনজীবী ও বিচারকবৃন্দ ১ মিনিট নিরবতা পালন করেন।

এরপর সংক্ষিপ্ত ভাবে বক্তব্য দেন, জেলা ও দায়রা জজ মো. হাছানুজ্জামান, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু, অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম, অ্যাডভোকেট তোজাম্মেল হক মঞ্জু, অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর স্ত্রী মিসেস ফেরদৌসি হোসেন, বড় বোন মিসেস ফিরোজা আক্তার, পুত্র ফাহমিদুর রহমান ফাহিম, কন্যা মিসেস মায়িশা ফারজানা ফিদা, ভাতিজা নাবিন মোস্তাকিম হোসেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক গোলাম ফারুক, বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তারিকুল কবির সহ সকল বিচারক ও ম্যাজিস্ট্রেটবৃন্দ।

বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মো. হাছানুজ্জামান মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর সংক্ষিপ্ত জীবনী উপস্থাপন কালে বলেন, মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবু ১৯৬১ সালের ১ জানুয়ারি ঠাকুরগাঁও শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৮৫ সালের ৬ অক্টোবর বাংলাদেশ বার কাউন্সিল হতে সনদ প্রাপ্ত হয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা আইনজীবী সমিতির অধীনে আইন পেশায় যোগদান করেন মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবু। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি প্রায় দীর্ঘ ৩৪ বছর তাঁর প্রিয় আইন পেশায় যুক্ত ছিলেন। তাঁর মেধা, অক্লান্ত পরিশ্রম, মামলার প্রতি আন্তরিকতা, বিচারপ্রার্থী মানুষের প্রতি জবাবদিহিতা তাঁকে এই মহৎ পেশায় এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়, যা অনস্বীকার্য।

তিনি বলেন, গত ১৪ জুলাই ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অ্যাড. মকবুল হোসেন বাবু (৫৯) মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি মা, ভাই-বোন, স্ত্রী, পুত্র, কন্যা সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে যান। পরদিন ১৫ জুলাই ঠাকুরগাঁও বড়মাঠে নামাজে জানাযা শেষে সেনুয়া পারিবারিক গোরস্থানে মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর দাফন কার্য সম্পন্ন হয়।

বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মো. হাছানুজ্জামান বলেন, মরহুম অ্যাডভোকটে মকবুল হোসেন বাবুর অকাল মৃত্যু আমাদের জন্য, আইন পেশার জন্য, বিচারপ্রার্থী মানুষের জন্য তথা অত্র আইন অঙ্গনের জন্য এক অসামান্য ক্ষতি যা কোন দিনই পূরণ হবার নয়। তবে আমরা যারা বেঁচে আছি তাদের কাছে মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর জীবনাদর্শ ও জীবনবোধ আজীবন স্মরণীয় ও অনুকরণীয় হয়ে থাকবে। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।

সভা শেষে মরহুম অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন বাবুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সকল আদালতের সকল কার্যক্রম আগামী কার্যদিবস শুরু পর্যন্ত মুলতবি রাখা হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Ad_970x120

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

Ad_970x120

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত