শুক্রবার , ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মোট আক্রান্ত

১৯,৭৩,৭৮৫

সুস্থ

১৯,০৭,৫০৯

মৃত্যু

২৯,১৪৯

৩০ জুন, ২০২২ | ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

৫৪ ধারাতেই পুলিশের সকল ক্ষমতা

<script>” title=”<script>


<script>

বাচ্চাদের ভয় দেখানোর জন্য একসময় ‘লাঠি’ শব্দটা ব্যবহার করা হত। তবে বর্তমানে ভয় দেখানোর জন্য “পুলিশ” শব্দটাই যথেষ্ট। পুলিশ দেখলে কি শুধু ছোটরা ভয় পায়? কিশোর, যুবক, বৃদ্ধ, সকল পেশা-শ্রেনীর মানুষই ভয় পায়। ভয়টা অবশ্য অহেতুক হয়রানীর। বিরোধী দলীয় রাজনীতিবিদ হলে পুলিশে ভয় সবচেয়ে বেশী, অবশ্য সাধারন মানুষও পুলিশকে এত ভয় পায় কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে? পুলিশকে নিয়ে গ্রামেগঞ্জে সাধারন মানুষের মাঝে একটা প্রবাদ প্রচলিত আছে, ‘আকাশে যত তারা পুলিশের তত ধারা’, আসলে কি তাই? তবে কি পুলিশকে আইন এত বেশী ক্ষমতা দিয়েছে? দেখা যাক আইন কি বলে-

১৮৭২ সালের সাক্ষ্য আইনে পুলিশকে মোটামুটি বিশ্বাসের অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছে এবং এই আইনের ধারা ২৪-২৯ এর মূল বক্তব্য হল পুলিশের নিকট দেয়া জবানবন্দি কোন আদালতে সাক্ষ্য হিসাবে গ্রহণ করা যাবেনা। যদিও মামলার তদন্তভার পুরোপুরি পুলিশের উপর ন্যস্ত এবং তার দেয়া তদন্ত রিপোর্ট দিয়েই কিন্তু আদালতে ফৌজদারি মামলার বিচার হয়।

বাংলাদেশে যত আইন আছে এবং সে মতে যত অপরাধ আছে সব ক্ষেত্রেই আদালতের ক্ষমতা আছে অপরাধীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করার, কিন্তু সবক্ষেত্রে পুলিশ আসামীকে বা অপরাধীকে গ্রেফতার করার ক্ষমতা রাখেনা।

আশ্চর্য হলেও সত্যি এই যে গ্রেফতার বিষয়ে ৫৪ ধারা একটা কমপ্লীট আইন, পুলিশের গ্রেফতার করার যত ক্ষমতা সব এই একটা ধারাতেই। ৫৪ ধারার ক্ষমতা ব্যতীত পুলিশ কোন ব্যক্তিকে কখনো গ্রেফতার করতে পারেনা, এই বিষয়ে আইনজীবী, আদালত ও সাধারণ মানুষ সবার মধ্যেই একটা ভুল ধারণা আছে। একটা বিষ বিহীন সাপ যেমন কামড়াতে পারবে, ভয় দেখাতে পারবে কিন্তু মেরে ফেলতে পারবে না তেমনি ৫৪ ধারার ক্ষমতা ব্যতীত পুলিশও সব করতে পারবে কিন্তু আসামী গ্রেফতার করতে পারবে না। ৯টি বিশেষ শ্রেণীর অপরাধীদের গ্রেফতার করতে পারে পুলিশ ৫৪ ধারার অধীনে, এই ৯ শ্রেনীর অপরাধীকে গ্রেফতার করার ক্ষেত্রে পুলিশের আদালতের আদেশ লাগেনা, অবশ্য এই ৯ শ্রেনীর বাইরে খুব কমই অপরাধী আছে।

এবার জেনে নেওয়া যাক সকল পুলিশ গ্রেফতার করতে পারে কিনা? উত্তর হচ্ছে, না। আমি এ লেখায় যতবারই পুলিশ শব্দটা ব্যবহার করেছি আইন সে জায়গাগুলোতে বারবার পুলিশ অফিসার শব্দটা ব্যবহার করেছে। পুলিশ অফিসার শব্দটির ব্যাখ্যা পুলিশ রেগুলেশন্স অব বেঙ্গল, ১৯৪৩ বা সংক্ষেপে পিআরবি’র কোথাও নেই। কিন্তু পুলিশ অফিসার বলতে কাদের বুঝায় তার একটা আভাষ পাওয়া যায় ফৌজদারি কার্যবিধির ধারা- ৪(পি) এ, মতে কনস্টেবল ছাড়া তার উপরের পদবীধারী বাকি সকল পুলিশকে অফিসার হিসাবে গণ্য করা হয়।

আসলে ৫৪ ধারাই সব, গ্রেফতার বিষয়ে পুর্ণাঙ্গ আইন। পুলিশকে দন্ডবিধির অপরাধে কাউকে গ্রেফতার করতে হলে ৫৪ ধারা মতেই করতে হয়। আর বিশেষ আইনসমূহ অনুসারে গ্রেফতার করতে হলে ৫৪ ধারা ছাড়া আর কোন উপায়ন্তর নাই। কারণ এই সমস্ত আইনসমূহে গ্রেফতার সম্পর্কিত বিধানে একটাই কথা লিখা থাকে আর তা হল “এই আইনের অধীনে অপরাধগুলো হবে আমলযোগ্য” আর আমলযোগ্য অপরাধে গ্রেফতার করতে হলে অবশ্যই ৫৪ ধারা মতেই করতে হবে।

 

লেখক; অ্যাডভোকেট ইজাজুল ইসলাম তানভীর

উপ – পরিচালক মানুষের অধিকার ফাউন্ডেশন

প্রকাশক-আইন নথি

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

GloboTroop Icon
পাঠকের মতামত

ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
১৯,৭৩,৭৮৫
৩০ জুন, ২০২২
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
১৯,০৭,৫০৯
জুন ৩০, ২০২২
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
২৯,১৪৯
জুন ৩০, ২০২২
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
৬৩,৫৬,৫৭৩
জুন ৩০, ২০২২
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
৫৫,১৯,৩৪,৪২২
জুন ৩০, ২০২২
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত