বৃহস্পতিবার , ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভোট নিয়ে এমন সহিংসতা কোনদিন দেখিনি_স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী লিটন




সুষ্ঠ, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে আগামী ৩০ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন আয়োজনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন, স্বতন্ত্র ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সামিউল হক লিটন। কর্মীদের উপর হামলা, হুমকি ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুরের প্রতিবাদে সোমবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের একটি হোটেলে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

এ সময় মোবাইল ফোন প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল হক লিটন বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ খুবই শান্তি প্রিয়। এর আগে এখানে সকল ভোট উৎসব মুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমিও গতবার নৌকা প্রতীক নিয়ে ভোট করেছি। তখন ক্ষমতাসীন দলের এমপিও ছিল আমার সাথে। তবুও ভোটে কোন প্রভাব বিস্তার করিনি। মানুষের হাত পা ধরে ভোট চেয়েছি। মাত্র ১ হাজার ভোটে জামায়াতের প্রার্থীর কাছে হেরেও প্রতিবাদ করিনি, সহিংসতার পথে যায়নি। বিজয়ীকে সাধুবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়েছি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় ভোট নিয়ে এমন সহিংসতা কোনদিন দেখিনি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় আমার মা বলে, ১০-১২ জন ছেলেকে নিয়ে চলাফেরা করবে। আমার অপরাধ কি? আমাকে কেন বডিগার্ড নিয়ে চলতে হবে? আমার স্ত্রী বলছে, রিটার্নিং কর্মকর্তার মাধ্যমে আবেদন করে অস্ত্রধারী দেহরক্ষী নিয়ে চলাফেরা কর। যাতে জীবনের নিরাপত্তা থাকে ও আমরা শঙ্কামুক্ত থাকতে পারি।

মেয়র প্রার্থী সামিউল হক লিটন বলেন, স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে মোবাইলফোন প্রতীকে নির্বাচন করছি। বেশ কিছুদিন হতে একটি পক্ষ আমার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর ও কর্মীদের উপর হামলা এবং হুমকি অব্যাহত রেখেছে। এ বিষয়ে তিনবার রিটার্নিং অফিসারকে লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরও কোন প্রতিকার পায়নি৷ এসব নিয়ে আজকে আমি বিপদে পড়েছি। কালকে শহরবাসীর উপর এর প্রভাব পড়বে। এখনই সবাই সজাগ হলে আগামী ৩০ নভেম্বর শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সকল ভোটাররা নিজের মতামত প্রকাশ করতে পারবে।

ফলাফল যাই হোক, নির্বাচনের মাঠে শেষ পর্যন্ত থাকবো উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, প্রথমবার হলেও ইভিএমে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটরগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এখানে বিগত কোন নির্বাচনে সহিংসতা ও ভোট কারচুপির অভিযোগ নাই। কিন্তু আসন্ন পৌর নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই নির্বাচনী মাঠকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত একটি পক্ষ। তিনি বলেন, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গিয়ে ওই পক্ষটি জনগণকে ভয় প্রদর্শন করছে। তারা ভোট গ্রহণের দিন সহিংসতা হবে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

পৌর নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু ও অবাধ হয়, ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে সে পরিবেশ তৈরী করতে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন মেয়র প্রার্থী সামিউল হক লিটন। সংবাদ সম্মেলনে মোবাইলফোন প্রতীকের মেয়র প্রার্থী লিটনের বন্ধু দুলাল, জুয়েল ও রিঙ্কুসহ জেলার কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোতাওয়াক্কিল রহমান জানান, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানো হয়েছে। এমনকি অভিযোগগুলোর বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশ সুপারকে জানানো হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত




ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
১৫,৭৮,৫৫০
৯ ডিসেম্বর, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
১৫,৪৩,৪৯১
ডিসেম্বর ৯, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
২৮,০১৬
ডিসেম্বর ৯, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
৫২,৯৮,০৯৫
ডিসেম্বর ৯, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
২৬,৮২,২৬,৮৩৫
ডিসেম্বর ৯, ২০২১
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত