বৃহস্পতিবার , ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং
নির্বাচন পোস্টার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর -পলাশবাড়ী) আসনে

নির্বাচন পোস্টার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর -পলাশবাড়ী) আসনে

তারেক আল মুরশিদ,গাইবান্ধা প্রতিনিধি: এসে গেছে নির্বাচন,পোস্টার ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে গাইবান্ধা ৩ আসনের সর্বত্র
উত্তরের জাতীয় পার্টির এক সময়ের দুর্গা হিসেবে খ্যাত গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর -পলাশবাড়ী) আসনে দশম ও একাদশ
জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফাটল ধরিয়ে দিয়ে লাগাতার দ্বিতীয়বার লক্ষে পৌছে বিপুল ভোটে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের
মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী প্রয়াত ডা. ইউনুস আলী সরকার দুই দুইবার এমপি নির্বাচিত হয়েছে।গত বছর ২৭ ডিসেম্বর
তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। এ বছর মার্চের ২৭ তারিখের মধ্যে আসনটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামীদিনে এ উপ
নির্বাচন কে হবেন আওয়ামীলীগের প্রার্থী চোখ কান সব সেই দিকে আসনটির সকল ভোটার সহ দেশবাসীর। দলের বর্তমান
সময়ে দলীয় নেতাকর্মীর পাশাপাশি সমর্থকদের সংখ্যা শিবিরটিও বিশাল। তাই আগামী উপ নির্বাচনে দলটি নিজেদের দলীয়
শক্তি ও সমর্থন আদায়ের পাল্লা ভাড়ির ধারাবাহিকতা রক্ষায় দলটির প্রধান সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিবেন বলে বিশ্বাস
করেন সর্বসাধারণ ভোটারবৃন্দ ।প্রয়াত ডাঃ মোঃ ইউনুস আলী সরকার এমপি তিনি শুধু দলীয় প্রার্থী নয় ব্যক্তি ইমেজকে
কাজে লাগিয়ে সাধারণ জনতার মনজয় করে বিজয় ছিনিয়ে নিয়ে এলাকার জনগনের সার্বিক উন্নয়নে নিজেকে নিবেদিত
করে ছিলেন মৃত্যু আগ মহুর্তেও। তাই এলাকাবাসীর দাবি এই এলাকার দুঃখ-সুখে যে অংশীদার হবে তেমনি একজন
পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজ সর্ম্পূণ ব্যক্তির হাতেই যেন তুলে দেওয়া হয় নৌকার হাল। দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে
জাতীয় সংসদের গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের উপনির্বাচনে তারিখ ঘোষণা না হলেও এলাকায়
জনসমর্থনের লক্ষ্যে পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুনে জমে উঠেছে প্রচার প্রচারণা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দেড় ডজনের
বেশি মনোনয়ন প্রত্যাশী।তারা কেন্দ্রের আশীর্বাদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন
পেতে আগ্রহী। ইতোমধ্যেই তারা অনেকেই যোগাযোগ করতে শুরু করেছে কেন্দ্রে। উপনির্বাচনের ভোটের দিন শেষ মুহূর্তের
হিসাব-নিকাশ দেখেই মনস্থির করবেন সাধারণ ভোটাররা। মার্কার অপেক্ষায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ও দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্ত
প্রার্থীর প্রচার-প্রচারণার অপেক্ষায় স্থানীয় নেতাকর্মীরা। সবার মুখে একটায় উক্তি কে হচ্ছে কাংক্ষিত নৌকার মাঝি।
এরইমধ্যে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে প্রাথমিকভাবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন- (১) দলটির
দলীয় প্রধানের আস্থাভাজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বাংলাদেশ কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের
সাবেক (এমপি) সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি।দলীয় মতভেদ ভুলে তিনি পলাশবাড়ী সাদুল্যাপুর উপজেলার
দলীয় নেতাকর্মীর পছন্দের প্রার্থী । তিনি উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। (২) জেলা আওয়ামীলীগের
সাবেক মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ডের একাধিকবার নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হক। বিগত ৯ ম সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী ছিলেন তিনি ।
তবে সে সময়ে মহাজোটগত নির্বাচনী সিদ্ধান্তের কারণে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন তিনি। বতমান সময়ে উপনির্বাচনে
প্রতিদ্বন্দিতা করতে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন বলে জানান।। তিনি উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। (৩)
প্রয়াত এমপি ইউনুস আলী সরকারের বড় ছেলে ড. ফয়সাল ইউনুস। সে রাজনীতি নেই বললেই চলে । কখনো রাজনীতিতে
কোন পদে ছিলেন না বলে প্রাথমিক ধারনা পাওয়া যায়। তবে পিতার রাজনৈতিক ইচ্ছা আখাংঙ্খা খুব ভাবে অনভব করতে
পেরেছেন মুজিব আর্দশের মানুষ ড. ফয়সাল ইউনুস।। তিনি উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তাকে
নিয়ে পিতা প্রয়াত ডাঃ ইউনুস আলী সরকারের অনুসারীদের মাঝে নতুন আশার সঞ্চয় হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by Ateam IT Solution