বুধবার , ৩রা জুন, ২০২০ ইং
শিরোনাম :
ধর্মপাশায় নতুন করে কারও শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েনি, করোনায় আক্রান্ত ১৫ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১২ জন আগামী বাজেটে মোবাইলের কলরেটে ভ্যাট ট্যাক্স বাড়ছে প্রথম আলো ট্রাস্টের পক্ষ থেকে কেশবপুরে আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করোনা মোকাবেলায় মণিরামপুর খুচরা কাঁচাবাজার ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দের বিশেষ নির্দেশনা জারি মৃত্যুর হিসাবে ঢাকাকে পেছনে ফেলল চট্টগ্রাম যুক্তরাজ্যে করোনায় ১৮২ বাংলাদেশির মৃত্যু যুক্তরাজ্যে করোনায় ১৮২ বাংলাদেশির মৃত্যু চৌগাছায় আট জুয়াড়ি আটক শশীভূষণে শহীদ জিয়াউর রহমানের ৩৯ তম শাহাদাত বার্ষিকীতে দোয়া মিলাদ অনুষ্ঠিত অচিরেই সুদিন ফিরবে : প্রধানমন্ত্রী
মোট আক্রান্ত

৩৬৭৫১

সুস্থ

৭৫৭৯

মৃত্যু

৫২২

ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

ভোলায় যুবলীগ নেতার বসতঘর থেকে ওএমএস’র ১২ বস্তা চাল উদ্ধার

ভোলায় যুবলীগ নেতার বসতঘর থেকে ওএমএস’র ১২ বস্তা চাল উদ্ধার

Ad_970x120

ভোলা প্রতিনিধিঃ   ভোলার লালমোহনে যুবলীগ নেতা মনির মাতাব্বরের বসতঘর থেকে ওএমএস’র ১২বস্তা সরকারী চাল উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে লালমোহন থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রবিবার(২৬এপ্রিল) ওমমএস’র চাল চুরি অভিযোগে যুবলীগ নেতা মনির মাতব্বরকে প্রধান আসামি করে এ মামলা দায়ের করেছে উপজেলা প্রশাসন।
জানা যায়, গত ২৫ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় লালমোহন উপজেলা নির্বাহী অফিসার( ইউএনও) হাবিবুল হাসান রুমী ও খাদ্য কর্মকর্তা সহ পুলিশ গজারিয়া ও এম এস’র ডিলার মনির মাতব্বরের সৈনিক বাজার এলাকায় বাড়ির বসতঘরে অভিযান চালিয়ে ১২ বস্তা সরকারী চাল উদ্ধার করেন। এসময় মনির মাতাব্বর পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ বাড়ি থেকে চাল জব্দ করে আনার পর রোবরার লালমোহন থানায় যুবলীগ নেতা মনির মাতাব্বরকে আসমি করে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু আসামি মনির মাতাব্বরকে এখনো গ্রেপ্তার করকে
পারেনি পুলিশ।

এলাকাবাসী জানান, মনির মাতাব্বর ওএমএস’র ডিলার হওয়ার পর থেকে নিয়মিত চাল চুরি করে বাড়তি দামে তা বাজারে বিক্রি করে দেয়। পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে চাল চুরির আরো অনেক গোপনীয় তথ্য বের হবে। লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর খায়রুল কবির জানান, মনির মাতব্বর ওএমএস’র স্থানীয় ডিলারের গুদামে শনিবার উপজেলা নির্বাহি অফিসার হাবিবুল হাসান রুমী গেলে তিনি চালের হিসাব দিতে পারেননি। পরে তার বাড়ি থেকে ওএমএসের ১২ বস্তা সরকারী চাল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় লালমোহন থানায় তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছে লালমোহন খাদ্য বিভাগ। এ বিষয়ে ওএমএস’র ডিলার যুবলীগ নেতা মনির মাতাব্বরের সাথে কথা বলতে তার ফোন নাম্বারে একাধিক বার কল দিয়ে পাওয়া যায়নি।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Ad_970x120

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

Ad_970x120

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত