মঙ্গলবার , ১৪ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম :
সাঘাটা ও ফুলছড়ির ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি, অতিক্রম করল ব্রক্ষ্মপুত্র নদীর বিপদসীমা চাঁপাইনবাবগঞ্জ ডিবি পুলিশের অভিযানে খদ্দেরসহ ৫ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার সাংবাদিকতার অর্ধশত বর্ষ উদযাপন উপলক্ষে প্রবীন সাংবাদিকদের সম্মাননা দিলো ইমজা ধর্মপাশায় ইয়াবা সহ তিনজন গ্রেপ্তার করোনা রোগীদের মনোবল বৃদ্ধি করে সুস্থ করে তুলছেন নড়াইল স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা মধ্যনগরে ৪৫০টি বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ধর্মপাশায় ডিএসকের সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত পীরগাছায় ‌‌‌’রেজা ক্যাটল ফার্মের’ মালিক একজন সফল উদ্যোক্তা কেশবপুর উপনিবার্চনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন নৌকার প্রার্থী শাহীন চাকলাদার চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদের মৃত্যু বার্ষিকী পালন
মোট আক্রান্ত

১,৪৫,৪৮৩

সুস্থ

৫৯,৬২৪

মৃত্যু

১,৮৪৭

ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

বন্যায় ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দী, নদী ভাঙ্গনে গৃহহীন প্রায় ৩শ’ পরিবার




আসাদ খন্দকার, সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও গত কয়েক দিনের প্রবল বর্ষণে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার যমুনা নদীর তীরবর্তী জুমারবাড়ী ইউনিয়ন, সাঘাটা ইউনিয়ন, ঘুড়িদহ ইউনিয়ন, ভরতখালী ইউনিয়ন ও হলদিয়া ইউনিয়নের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

বন্যা কবলিত এলাকায় পাট, আমন বীজতলা, পটল, শাক-সবজি, বর্ষালী রোপা আমন ক্ষেত সহ শত শত একর জমির ফসল পানিতে নিমজ্জ্বিত হয়েছে। পানিবন্দি পরিবারেরা গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগী নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন। বিশুদ্ধ পানি ও গো-খাদ্যের সংকট দেখা দিয়েছে। পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে সাঘাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ সাথালিয়া, উত্তর সাথালিয়ার ফ্লাস সেন্টার, গোবিন্দী, হাটবাড়ি, বাঁশহাটা, হাসিলকান্দি মৌজার প্রায় ২শ’ পরিবারের ঘরবাড়ী নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙ্গনের শিকার এসব পরিবার অন্যত্র গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে।

সাঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন সুইট জানান, আমার ইউনিয়নের প্রায় ৪ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এ পর্যন্ত পানিবন্দী পরিবারের জন্য সরকারী ভাবে কোন ত্রাণ সহায়তা পাওয়া যায় নি।
হলদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী প্রধান জানান, আমার ইউনিয়নের সকল মানুষই পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এ পর্যন্ত পানিবন্দী পরিবারের জন্য সরকারী ভাবে কোন ত্রাণ সহায়তা পাওয়া যায় নি।

জুমারবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী আকন্দ জানান, আমার ইউনিয়নের ব্যাঙ্গারপাড়া, থৈকড়েরপাড়া, কাঠুর, পূর্ব আমদিরপাড়া, কুন্দপাড়া গ্রামের প্রায় ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এসব পানিবন্দী মানুষের জন্য সরকারী ভাবে কোন আর্থিক সাহায্য পাওয়া যায় নি।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত

Ad_970x120

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

Ad_970x120

করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
১,৫৬,৩৯১
Developed By Ariful
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
৬৮,০৪৮
Developed By Ariful
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
১,৯৬৮
Developed By Ariful
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
৫,২১,৯৪০
Developed By Ariful
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
১,০৯,০২,৩৪৭
Developed By Ariful
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত