রবিবার , ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম :
এবার ঘরে ঘরে মৌসুমী ফল দিলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির হোসেন দাউদকান্দির গোমতী নদীতে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন জাহাজ মালিক সমিতি ভোলায় দুটি মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ গৌরীপুর শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি আলী মনসুরের মৃত্যুতে শোক ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত সাপাহারে হতাশা কাটাতে জমে উঠেছে অনলাইন আম ব্যবসা সাপাহারে সফল উদ্যোক্তার রপ্তানি যোগ্য আম্রপালি আম গেল ইংল্যান্ডে সাপাহারে মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নতুন ঘর পাবার অপেক্ষায় ৬০ জন গৃহহীন পরিবার পরিবারের জিম্মায় আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনান কুরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে শেষ করলো দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী  গৌরীপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদের দাফন সম্পন্ন

ধর্মপাশায় অবশেষে ইউপি সদস্যকৃত আত্মসাতের টাকা ফেরত দেওয়ার লিখিত অঙ্গীকার




সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাদেকুর রহমানের বিরুদ্ধে  ওই ইউনিয়নের একটি মসজিদে সরকারি অর্থায়নে উন্নয়ন কাজ করে দেওয়ার কথা বলে ও সরকারি ঘর দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে স্থানীয় লোকজনদের কাছ থেকে এক লাখ এক হাজার টাকা নিয়ে তিনি তা আত্মসাত করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগের বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় ওই ইউপি সদস্য ভুক্তভোগী লোকজনদের টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য লিখিত অঙ্গীকার করেছেন। ৮ জুন মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মর্কতার কার্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে।

উপজেলা প্রশাসন ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের রাজাপুর আগলাহাটি গ্রামের বাসিন্দা সাদেকুর রহমান একই ওয়ার্ডের দয়ালপুর দক্ষিণপাড়া জামে মসজিদে সরকারি অর্থায়নে মাটি ভরাট করার করে দেওয়ার কথা বলে ৭/৮মাস আগে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুর রাশিদের কাছ থেকে ১৭হাজার টাকা উৎকোচ নেন। এ ছাড়া আশ্রয়ণ ২ প্রকল্পের সরকারি ঘর পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে স্থানীয় ১৪জন ব্যক্তির কাছ থেকে ৮৪হাজার টাকা উৎকোচ নেন ওই ইউপি সদস্য। এ নিয়ে ভুক্তভোগী লোকজন ইউএনওর কাছে মৌখিক ও লিখিতভাবে অভিযোগ করেন।

ইউএনওর নির্দেশে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ওই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আমানুর রাজা চৌধুরী  অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সাদেকুর রহমানকে নিয়ে ইউএনওর কার্যালয়ে হাজির হন। একই সময়ে ভুক্তভোগী লোকজনও সেখানে উপস্থিত হন।

পরে স্বাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মসজিদের ১৭হাজার এবং ১৪জন ব্যক্তির কাছ থেকে ৮৪হাজার টাকা নেয়ার সতত্যা পাওয়া যায়।  এ ঘটনায় অনুতপ্ত হয়ে ইউএনওসহ উপস্থিত লোকজনদের কাছে ওই ইউপি সদস্য ক্ষমা চান। ইউএনও ওই মসজিদের ১৭হাজার টাকার পরিবর্তে ৩০হাজার টাকা আগামী ১১জুন ও ঘর বাবদ ১৪জন ব্যক্তির কাছ থেকে নেওয়া ৮৪হাজার টাকা ২৫জুন ফেরত দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। ইউপি সদস্য টাকা ফেরত দেওয়ার লিখিত অঙ্গীকার করে ইউপি চেয়ারম্যানের জিম্মায় তিনি সেখান থেকে মুক্তি পান।

ইউপি সাদেকুর রহমান সদস্য বলেন, আমার ভুল হয়ে গেছে।ভবিষ্যতে আর এমনটি হবে না।

ইউএনও মো.মুনতাসির হাসান বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইউপি সদস্য সাদেকুর রহমান ধার্যকৃত টাকা ফেরত না দিলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত




ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




করোনা তথ্য
দেশে আক্রান্ত
৮,৪৪,৯৭০
১৯ জুন, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে সুস্থ
৭,৭৮,৪২১
জুন ১৯, ২০২১
করোনা তথ্য
দেশে মৃত্যু
১৩,৩৯৯
জুন ১৯, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে মৃত্যু
৩৮,৬৯,০৪৭
জুন ১৯, ২০২১
করোনা তথ্য
বিশ্বে আক্রান্ত
১৭,৮৭,০০,১৭১
জুন ১৯, ২০২১
©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত