মঙ্গলবার , ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং

Ateam IT Solution

সোনারগাঁ মেঘনা নদীর বালু সন্ত্রাসী মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ১৫ জন আহত

সোনারগাঁ মেঘনা নদীর বালু সন্ত্রাসী মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ১৫ জন আহত

সোনারগাঁয়ের মেঘনা নদীতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন নিয়ে গ্রামবাসী ও বালু সন্ত্রাসীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার আনন্দবাজার এলাকায় টেঁটাবিদ্ধসহ দু’পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় বৈদ্যের বাজার এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি ও দোকান পাট ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। নতুন করে সংঘর্ষের আশংকায় ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ ১ জনকে আটক করেছে পুলিশ।সোনারগাঁ থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়,উপজেলার বারদী ইউনিয়নের মেঘনা নদীর নুনেরটেক গ্রাম ঘেঁষে বৈদ্যে বাজার ইউপি সদস্য বাসেদ মেম্বার ও আয়েব আলী মেম্বারের নের্তৃত্বে মঙ্গলবার ভোরে একাধিক ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন শুরু করে। খবর পেয়ে এলাকাবাসী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বালু উত্তোলনকারী ড্রেজার গুলোকে ধাওয়া দেয়।এলাকাবাসীর দাওয়ার মুখে বালু উত্তোলন কারীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বালু উত্তোলনকারীরা বৈদ্যেরবাজার ইউপি’র সাবেক সদস্য হোসেন মেম্বারকে দায়ী করে। এ নিয়ে মঙ্গলবার সকালে হোসেন মেম্বারের লোকজনের সাথে বাসেদ মেম্বারের লোকজনের তর্ক বির্তকের এক পর্যায়ে দু’পক্ষের লোকজন টেঁটা বল্লম ও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে মাছুম মিয়া, সফিকুল ইসলাম, শাহজাহান, শামীম মিয়া, রনি মিয়া, বাবুল মিয়া, সিরাজ মিয়া, আলী আকবর, কোহিনুর আক্তার, আরিফা বেগম ও দিপা আক্তারসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়।আহতদের মধ্যে শফিকুল, বাবুল ও রনির ঘাড়ে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে টেঁটাবিদ্ধ হওয়ায় তাদেরকে আশংকা জনক অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্য আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে। সংঘর্ষের সময় বাসেদ মেম্বারের লোকজন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভুইয়া, হোসেন মেম্বারও ফুল মিয়ার বাড়িঘর ও কয়েকটি দোকানপাট ভাংচুর করে।

খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) রুরায়েত হায়াত শিপলু, নারায়ণগঞ্জ পুলিশের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার(খ অঞ্চল) সাজেদুর রহমান ও সোনারগাঁ থানার ওসি শাহ মোঃ মঞ্জুর কাদের পিপিএম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। আবারও সংঘর্ষের আশংকায় বৈদ্যেরবাজার এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ রকি নামের ১জনকে আটক করা হয়েছে।এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.শাহীনুর ইসলাম জানান, বালু উত্তোলনকারী অবৈধভাবে আনন্দবাজার চরে বালুউত্তোলন করায় এলাকাবাসী বাধা দেয়। এতে দু’পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Ateam IT Solution

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত