মঙ্গলবার , ২রা জুন, ২০২০ ইং
মোট আক্রান্ত

৩৬৭৫১

সুস্থ

৭৫৭৯

মৃত্যু

৫২২

ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

নড়াইল বর্তমান ও সাবেক জেলা জাপা সভাপতির সমর্থকদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা : আহত ৫

নড়াইল বর্তমান ও সাবেক জেলা জাপা সভাপতির সমর্থকদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা : আহত ৫

নড়াইল বর্তমান ও সাবেক জেলা জাপা সভাপতির সমর্থকদের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা : আহত ৫

Ad_970x120

এসকে,এমডি ইকবাল হাসান, নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির বর্তমান সভাপতি ও সাবেক সভাপতির সমর্থকদের মধ্যে হামলা-পাল্টা
হামলার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় লোহাগড়ার সিএন্ডবি চৌরাস্তা
(কুন্দসী) এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। জাতীয় পার্টির পরিচয়ে একদল লোক সভা-সমাবেশ করাকালে
জেলা জাতীয় পার্টির বর্তমান সভাপতি এ্যাডঃ ফায়েকুজ্জামান ফিরোজের নেতৃত্বে তার
সমর্থকরা বাঁধাপ্রদান করলে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে
আনে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এ্যাডঃ
ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ এর নেতৃত্বে শুক্রবার বেলা ১১টায় কুন্দসী সরকারি প্রাইমারী স্কুলের পাশে
দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে যৌথ কর্মী সম্মেলন চলছিল। ওই কর্মী সম্মেলন শেষে নেতৃবৃন্দ জানতে
পারেন সিএন্ডবি স্ট্যান্ডের পাশে জাতীয় পার্টির ব্যানার ব্যবহার করে জাতীয় পার্টি থেকে বিভিন্ন
অভিযোগে বিতাড়িত-বহিঃস্কৃত কয়েকজন এনপিপির (ন্যাশনাল পিপলস পার্টি) সমর্থক সভা-
সমাবেশ করছে। নড়াইল জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এ্যাডঃ ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ এর নেতৃত্বে
তার সমর্থকরা তখন সিএন্ডবি স্ট্যান্ডের ওই সভা স্থলে আসেন। দলের সভাপতি সভাস্থলে পৌঁছেই
কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তার সাথে কথা বলতে থাকেন। সভাপতি পুলিশকে বলছিলেন যে,আমি জেলা
জাতীয় পার্টির সভাপতি। আমি অন্যত্র দলের সভা করলাম। আর এখানে জাতীয় পার্টি পরিচয়ে যারা
সভা করছে তারা এনপিপির সদস্য। তারা জাতীয় পার্টি থেকে বিতাড়িত-বহিস্কৃত। তিনি ওই সভা
বন্ধের দাবি জানান। এসময় জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি শরীফ মুনির হোসেনের
সমর্থকরা বর্তমান সভাপতি এ্যাডঃ ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ এর সমর্থকদের উপর লাঠি-সোটা
নিয়ে হামলা চালায়। ওই সময় দুপক্ষে সংঘর্ষ বেধে যায়। হামলায় দুপক্ষের অন্তত ৪/৫জন কমবেশি আহত
হয়েছেন। আহতরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।

জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সভাপতি এ্যাডঃ ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ বলেন, শরীফ মুনির
হোসেন জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি ছিলেন। তিনি এখন জাতীয় পার্টি থেকে বহিঃস্কৃত-
বিতাড়িত। সদস্য সমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শরীফ মুনির হোসেনসহ কয়েকজনে বিএনপির
নেতৃত্বাধীন এনপিপি(ন্যাশনাল পিপলস পার্টি)তে যোগদেন। এখন ওই সব নেতাদের সাথে জাতীয়
পার্টির কোন সম্পর্ক নেই। আমি ও আমার সমর্থকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে সভা বন্ধ করতে প্রশাসনকে
অনুরাধ করলে আমার সমর্থকদের উপর হামলা চালালে দুপক্ষে সংঘর্ষ বেধে যায়।

এদিকে,শরীফ মুনির হোসেন পক্ষের নেতা আবুল হাসান চঞ্চল বলেন, আমরাই জাতীয়
পার্টি। আমরা সভা করছিলেন বর্তমান সভাপতির সমর্থকরা বাধা প্রদান করায় বিশৃক্সখল পরিবেশ
সৃষ্টি হয়।
লোহাগড়া থানার ওসি(তদন্ত) আমানুল্লা-আল বারী বলেন, পুলিশ সুপার সহ লোহাগড়া থানা
পুলিশের অনুমতি নিয়ে কয়েকজন লোক জাতীয় পার্টি পরিচয়ে সিএন্ডবি স্ট্যান্ডে সভা-সমাবেশ
করছিলেন। এসময় জেলা জাতীয় পার্টির বর্তমান সভাপতি ও তার সমর্থকরা ওই সভায় বাঁধা দিলে
বিশৃঙ্খলা পরিবেশ সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Ad_970x120

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

Ad_970x120

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত