বৃহস্পতিবার , ৪ঠা জুন, ২০২০ ইং
শিরোনাম :
বড়লেখায় মডেল আবাসন প্রকল্পের আওতায় চা শ্রমিকের ৫টি ঘর নির্মাণ কেশবপুরে করোনা সময়কালে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২৬৬ মামলায় ৬ লাখ টাকা জরিমানা সিরাজগঞ্জে র‌্যাব-১২ এর অভিযানে প্রবাসী অপহরণ চক্রের ২ সদস্য আটক কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য সোহরাব উদ্দিনের স্ত্রী বেগম লুৎফুন্নেছা ইন্তেকাল করেছেন ধর্মপাশায় ২২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসএসসিতে সেরা মধ্যনগর পাবলিক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কোয়ারেন্টান ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে খানসামায় সচেতনতামূলক সভা আদমদীঘিতে আরো ১ ব্যক্তির করোনা শনাক্ত ‘রেড জোন’ থেকে অফিসে আসতে হবে না রক্ত দিতে বছরজুড়ে ছোটছে একদল যুবক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ৫০ কর্মকর্তা আক্রান্ত, বলছে অফিসার ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল
মোট আক্রান্ত

৩৬৭৫১

সুস্থ

৭৫৭৯

মৃত্যু

৫২২

ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর

করোনা আতঙ্কে নোয়াখালীতে বিনা চিকিৎসায় আরও একজনের মৃত্যু

করোনা আতঙ্কে নোয়াখালীতে বিনা চিকিৎসায় আরও একজনের মৃত্যু

Ad_970x120

নোয়াখালীতে অসুস্থ রোগীকে কোনো হাসপাতাল ভর্তি না করায় এবং কোনো চিকিৎসক চিকিৎসা না দেয়ায় আরও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এতে সাধারণ রোগীদের মধ্যেও আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।

জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের আলাইয়ারপুর গ্রামের আশ্রাফ আলী ভুঞা বাড়ির বেলায়েত হোসেন ওরফে কালা খোকন (৪০) শনিবার থেকে ফ্লু জ্বরে ভুগছিলেন।

সোমবার তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হলে আত্মীয়স্বজন তাকে নোয়াখালী প্রাইম প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল তাকে ভর্তি না করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেয়।

খোকনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার শরীরের তাপমাত্রা দেখে ভর্তি না করে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে আত্মীয়রা তাকে ঢাকায় না নিয়ে বাড়ি নিয়ে যায়। সোমবার সন্ধ্যায় তিনি বিনা চিকিৎসায় মারা যান।

এর আগে সোমবার নোয়াখালী সদরের এওয়াজবালিয়ার আবদুর রহিম (৬০) টাইফয়েডে আক্রান্ত হয়ে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে এলে জরুরি বিভাগ থেকেই তাকে ফেরত দেয়া হয়। বাড়ি নেয়ার পথেই তিনি মারা যান।

বেগমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বেলায়েত হোসেন বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর কথা স্বীকার করে জানান, হৃদরোগে মৃত্যুর পরও এলাকাবাসী প্রথম তাকে করোনার রোগী মনে করে আতঙ্কে দাফন করতে অপারগতা প্রকাশ করে। পরে তার নির্দেশে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের হস্তক্ষেপে রাতেই তাকে দাফন করা হয়।

এদিকে গত এক সপ্তাহ ধরে ঢাকা থেকে আসা চিকিৎসকরা নোয়াখালীতে চেম্বার বন্ধ করে দিয়েছেন এবং স্থানীয় চিকিৎসকরাও তাদের প্রাইভেট চেম্বারে রোগী দেখেন না। প্রাইভেট হাসপাতালের ডাকেও সাড়া দেন না। সরকারি হাসপাতালেও জ্বর, সর্দি, হাঁচি, কাশি, হাঁপানির রোগীদের অঘোষিতভাবে চিকিৎসা বন্ধ রেখেছে চিকিৎসকরা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Ad_970x120

ইমেইলে সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ইনবক্সে পেতে আজই গ্রাহক হোন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর

Ad_970x120

©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত