বুধবার , ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

দেশে সন্ধান মিলেছে নতুন গ্যাস কূপ

পরীক্ষামূলক আগুন প্রজ্বলন
পরীক্ষামূলক আগুন প্রজ্বলন

<script>” title=”<script>


<script>

গতকাল সোমবার সন্ধ্যার দিকে ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশায় ভোলা নর্থ-২ এর নতুন কূপ খনন শেষে পরীক্ষামূলকভাবে আগুন প্রজ্বলন করা হয়েছে।

দেশে সন্ধান মিলেছে নতুন গ্যাস কূপ

 

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেডের (বাপেক্স) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলী এতথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ৩ হাজার ৫২৮ মিটার গভীরে গ্যাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

বর্তমানে পরীক্ষামূলকভাবে আগুন প্রজ্বলন করা হয়েছে। আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, এ কূপ থেকে দৈনিক ২০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা সম্ভব হবে। তবে আগামী ৭২ ঘণ্টার পর আমরা নিশ্চিত হতে পারবো এ কূপে কী পরিমাণ গ্যাস মজুত রয়েছে।

এক বিজ্ঞপ্তিতে বিদ্যূৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ৫ ডিসেম্বর ভোলা নর্থ-২ এর কূপ খনন কাজ শুরু করা হয়। ৩ হাজার ৪২৮ মিটার গভীরতায় সফলভাবে কূপ খনন কার্যক্রম শেষ হয় ১৭ জানুয়ারি।

সোমবার এ কূপে গ্যাস পাওয়া যায়। চূড়ান্ত প্রোডাকশন টেস্টিং শেষে এ কূপ থেকে গ্যাস উৎপাদন হার নির্ণয় করা হবে। তবে কমবেশি ২০ এমএমএসসিএফডি হারে গ্যাস উৎপাদনের বিষয়ে বাপেক্স আশাবাদী বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানান।

বিদ্যূৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাপেক্সকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, গ্যাস অনুসন্ধান কার্যক্রম পরিকল্পনা অনুসারে চালাতে হবে। ২০২২-২৫ সময়কালের মধ্যে পেট্রোবাংলা মোট ৪৬ টি অনুসন্ধান, উন্নয়ন ও ওয়ার্কওভার কূপ খননের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

অফসোর ও অনসোরে গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলন কার্যক্রম আরও বাড়ানোর নির্দেশ দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। দেশীয় জ্বালানির উৎস অনুসন্ধান কার্যক্রম বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে কাতার, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ব্রুনেইসহ গ্যাস ও তেল উৎপাদনকারী দেশের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি ও স্বল্পমেয়াদি চুক্তির প্রচেষ্টাও অব্যাহত রয়েছে।

নতুন করে তেল-গ্যাস পাওয়া গেলে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন হতে পারে দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোয়। এতে জেলাগুলোর শিল্পায়ন হবে বলে জানিয়েছে বিশ্লেষকরা।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৪-৯৫ সালে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার শাহবাজপুরে প্রথম গ্যাস আবিষ্কার হয়। পর্যায়ক্রমে সেখানে ৫ টি ও জেলার আরও ৩ টি স্পটে কূপ খনন করে বাপেক্স। চলতি বছর জুলাইয়ে আরও ১ কূপ খনন করবে সংস্থাটি।

এছাড়া জেলার চরফ্যাশন থেকে নিঝুম দ্বীপ পর্যন্ত ১২ এলাকায় গ্যাসের সম্ভাব্যতা যাচাই করতে ভূ-কম্পন বা সিসমিক জরিপ করবে বাপেক্স। সেখানেও বিপুল পরিমাণ গ্যাস পাওয়া আশা করছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

GloboTroop Icon
পাঠকের মতামত

ই-মেইলে সর্বশেষ সংবাদ

বিনামূল্যে সর্বশেষ সংবাদ সরাসরি আপনার ই-মেইলে পেতে আজই সাবস্ক্রাইব করুন!

তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক।
আমাদের গোপনীয়তার নীতি

Meghna Roktoseba




এক ক্লিকে জেনে নিন বিভাগীয় খবর




©মেঘনা নিউজ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত